চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

1/5 - (1 vote)

বরাবরজনাব …………………………চেয়ারম্যান, …………নং ইউনিয়ন পরিষদসদর দক্ষিণ, কুমিল্লা।
বিষয় : স্থানীয় জুরি-শালিসীতে নারাজি প্রসঙ্গে।
জনাবআসসালামু আলাইকুম।
আমি ……………। আপনার…… নং ইউনিয়নের বাসিন্দা।

আপনি রাষ্ট্রীয় রীতিতে আমাদের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। ফলে আমাদের বৈষয়িক, সামাজিক ইত্যাদি নানাবিদ সমস্যায় আপনি অভিভাবক হয়ে শালিসী সমাধান দিয়ে থাকেন।

চেয়ারম্যান এর নিকট দরখাস্ত লেখার নিয়ম ও নমুনা
আমি তফসিলোক্ত ভূমি বিগত ………তারিখে ……………পিতা……………… এর কাছে ……………ইং তারিখ হতে …………তারিখ পর্যন্ত ……………লক্ষ টাকার বিনিময় ইজারা দিয়েছি।যার স্ট্যাম্প এবং যাবতীয় চুক্তিপত্র আমার নিকট সংরক্ষিত আছে।

অফিসে ছুটির দরখাস্ত লেখার নিয়ম

আমি ইজারার এই টাকা পরিশোধ করতে পারছিলাম না। ফলে আমার —-দাগের একটি জমি জবর-দখল করে তিনি নানাস্থাপনা তৈরি করেছেন। আমি নিষেধ করলেও উনি শুনেন নাই।পরবর্তীতে ‘আমি জমি বিক্রি করেছি কিন্তু দলীল দিচ্ছি না’ মর্মে নানা ভুয়া সাক্ষী উপস্থিত করছেন।যা একেবারে মিথ্যা এবং বানোয়াট। যার কোন কাগজপত্র বা স্ট্যাম্প ও নাই।এখন তিনি জমিটির দলিল করে দিতে চাপ দিচ্ছেন।

আমি রাজি হচ্ছিলাম না বলে এক পর্যায়ে———গং আমার উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। আমি আহত হই। এ নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসার পুলিশি সনদও আমার কাছে আছে। এমতাবস্থায় উনারা ভীত হয়ে আপনার কাছে বিচারের প্রার্থী হয়।

আপনি দক্ষতার সাথে বিচারটি করার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু আমার ওই প্রতিপক্ষ ———গং বিচারাকার্যে যাদেকের উপস্থিত করেছেন; তারা জোরপূর্বক ‘আমি জমি বিক্রি করেছি’ এ স্বীকারোক্তি আদায়পূর্বক দলিল সম্পন্ন করার জন্য চাপ দিচ্ছেন। এখন তালবাহানাপূর্বক একটি জুরি বিচারের দিন ঠিক করেছেন। আমি মনে করি এখানে আমি ন্যায্য বিচার পাব না।

তাই তফসিলোক্ত ভূমি বাবত আমি দেওয়ানী আদালত মোকদ্দমা দায়ের করেছি।এবং ওই জুরি-শালিসীতে আমি নারাজি দিলাম। একই সাথে আপনার এখানের সকল বিচারকার্য থেকে আমাকে আমি প্রত্যাহার করে নিলাম।আমি আদালতের মাধ্যমে বিচারপ্রার্থী হবার ইচ্ছা পোষণ করছি।
উল্লেখ্য যে আপনি বিষয়টা সুষ্ঠু সমাধান করার জন্য চেষ্টা করেছেন, এ জন্য আপনার কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।

অতএব, আমি আপনার বিচারকার্য থেকে আমাকে আমি প্রত্যাহার করে নেওয়ার বিষয়টা আপনাকে অবহিত করার জন্য এ পত্র প্রদান করলাম। আমি আশাকরি আপনি আমাকে আদালতের মাধ্যমে ন্যায়বিচার পাওয়ার জন্য মানসিক ও প্রসাশনিক সহযোগিতা করতে মর্জি করবেন।

তফসিল-[কুমিল্লা জেলার ……… থানার ……মৌজায় বিএস …… নং খতিয়ান ভুক্ত : সাবেক …, হাল …দাগে … শতক।

নিবেদক –
নাম…………………পিতা………………মৌজা………………ইউনিয়ন …………থানা…………জেলা……………

চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম
চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *