টেকনো মোবাইল কেমন

টেকনো মোবাইল কেমন

Rate this post

টেকনো মোবাইল কেমন

টেকনো মোবাইল কেমন এছাড়া এতে ১৮ ওয়াট ফ্ল্যাশ চার্জিংয়ের সঙ্গে থাকছে ৫০০০ এমএএইচের সুবৃহৎ ব্যাটারি। ফটোগ্রাফির জন্য টেকনো ক্যামন ১৬ এ রয়েছে ৪৮ মেগাপিক্সেল কোয়াড এআই রেয়ার ক্যামেরা। এর সঙ্গে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ কন্ট্রোল লেন্স, ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ম্যাক্রো শট লেন্স ও পেন্টা ফ্ল্যাশসহ এআই লেন্স। এর সামনে রয়েছে ডুয়েল ফ্ল্যাশসহ ১৬ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ফ্রন্ট ক্যামেরা।

টেকনো ক্যামন ১৬ এর অন্যতম আকর্ষণীয় ফিচার হল এর প্রসেসর। এটিতে রয়েছে হেলিও জি-৭০ গেমিং প্রসেসর এবং এর সঙ্গে থাকা ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ ছবি তোলা, নেটওয়ার্কিং, গেমিংসহ এর সামগ্রিক পারফর্মেন্সকে বাড়িয়ে দিয়েছে প্রায় ১১ শতাংশ।

Google News Flow Now

এছাড়া ক্রেজি প্রাইস অফারে স্পার্ক ৬ (৪জিবি+১২৮জিবি), স্পার্ক ৬ এয়ার (৩জিবি+৬৪জিবি) এবং স্পার্ক ৫ প্রো (৪জিবি+৬৪জিবি)তেও চলছে বিশেষ ছাড়, যা স্টক শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে।

এ প্রসঙ্গে ট্রানশান বাংলাদেশ লিমিটেডের সিইও রেজোয়ানুল হক বলেন, বাংলাদেশে টেকনো ফ্যানদের জন্য নির্দিষ্ট মডেলের স্মার্টফোনে ছাড় দিতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরা টেকনো ফ্যানদের ভালো মানের স্মার্টফোন পৌঁছে দেবার লক্ষ্যে কাজ করছি। আমাদের এ উদ্যোগ নতুন বছরে উন্নত ফিচারের স্মার্টফোনকে আরও সহজলভ্য করতে সহায়তা করবে।

টেকনো মোবাইল কম দামে

বিশ্বজুড়ে ৫৮টি দেশে সফলতার পর, বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ মোবাইল হ্যান্ডসেট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ট্রানশান হোল্ডিংস জুলাই, ২০১৭ সালে বাংলাদেশের বাজারে যাত্রা শুরু করে। নিজেদের প্রসার বৃদ্ধির পাশাপাশি গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী পণ্য সরবরাহে মানসম্পন্ন পণ্য, ব্যবহার অভিজ্ঞতা এবং বিক্রয়োত্তর সেবা – প্রতিটি বিষয়ের উপর সমান গুরুত্ব দিয়ে ট্রানশান হোল্ডিংস নিয়ে এসেছে তাদের প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড টেকনো। ট্রানশান বিশ্বাস করে, বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল বাজারগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম এবং তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তির ধারাবাহিক উন্নয়নের ফলশ্রুতিতে, প্রতিনিয়ত বাজারে মোবাইল হ্যান্ডসেটের জন্য চাহিদার যে নতুনত্ব তৈরী হচ্ছে; তা পূরন করতে সক্ষম টেকনো মোবাইল।

টেকনো মোবাইল এর ০৮টি স্মার্টফোন বর্তমানে বাজারে রয়েছে, যার খুচরা মূল্য ৬,১৯০ টাকা থেকে শুরু করে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত।

সম্প্রতি, টেকনো বাজারে নিয়ে এসেছে ইনফিনিটি ডিসপ্লে এবং সেলফি ক্যামেরার বিশেষত্ব নিয়ে নতুন আরেকটি স্মার্টফোন; ক্যামন আই। উন্মোচিত হবার পর থেকেই গ্রাহকদের মধ্যে সাড়া তৈরী করতে সক্ষম হয় ক্যামন আই। টেকনো আশাবাদী, ক্যামন আই একই মূল্যমান সেগমেন্টের মধ্যে তুলনামূলক এগিয়ে থাকবে।

ডিসপ্লে

ক্যামন আই স্মার্টফোন এ রয়েছে, ৫.৬৫ ইঞ্চি এইচডি প্লাস (১৪৪০*৭২০) আইপিএস ইনফিনিটি ডিসপ্লে। হ্যান্ডসেট এর আকারের তুলনায় ৮২.১ শতাংশ জুড়ে থাকা ইনফিনিটি ডিসপ্লেতে ব্যবহার করা হয়েছে ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস, যা ব্যবহারকারীকে দিবে নতুন অভিজ্ঞতা।

ক্যামেরা

১৩ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরাতে রয়েছে এফ ২.০ অ্যাপাচার, এলইডি এবং স্ক্রীন ফ্ল্যাশ। সেলফি তোলার সময় ফ্রন্ট ফ্ল্যাশের সাথে সাথে ব্যবহারকারী আরো পাবে স্ক্রীন ফ্ল্যাশ সাপোর্ট, সেলফি হবে আরো দুর্দান্ত। ভিডিও চ্যাটিং এর সময় ফ্ল্যাশ লাইট ব্যবহারের সুবিধা তো থাকছে ই। ব্যবহার করতে পারবেন ৫.০ লেভেল ফেস বিউটি মোড। ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরায় এফ ২.০ অ্যাপাচার এর সাথে সাথে কোয়াড এলইডি ফ্ল্যাশ থাকায়, যেকোন আলোতে স্পষ্ট এবং উজ্জ্বল ছবি তুলতে সক্ষম ক্যামন আই।

বিল্ট-ইন কোয়ালিটি

ফুল ভিউ ডিস্প্লের এই স্মার্টফোনটি স্লিম এবং স্মার্ট আউটলুকে তুলনামূলক হালকা আকারের। ৭.৭৫ মিমি পূরুত্বের ক্যামন আই স্মার্টফোনটির ওজন মাত্র ১৩৬.৬ গ্রাম। ক্যামন আই স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১.৩ গিগা হার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর, ০৩ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ৩২ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ।

সিকিউরিটি

নিরাপত্তার জন্য ক্যামন আই স্মার্টফোনে রয়েছে স্মার্ট ফিঙ্গারপ্রিন্ট আনলক। মাত্র ০.১৫ সেকেন্ডে আনলক হবে ক্যামন আই। একজন ব্যবহারকারী ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করে ফোন আনলক এর সাথে সাথে আপ্লিকেশন লক, আনলক, ভয়েস কল রিসিভ করতে এবং ছবি তুলতে পারবেন। আলাদা আলাদা স্লটে একই সাথে ব্যবহার করতে পারবেন দুইটি সিমকার্ড এবং এক্সটারনাল মেমোরি কার্ড।

ব্যাটারি

দীর্ঘস্থায়ী এবং একটানা ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য ক্যামন আই স্মার্টফোনে ৩০৫০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে। ইনফিনিটি ডিসপ্লের সাথে সাথে দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাক আপ ব্যবহারকারীর গেমিং, সোস্যাল নেটওয়ার্কিং এবং অন্যান্য এন্টারটেইনমেন্ট এ যোগ করবে ভিন্ন মাত্রা।

অপারেটিং সিস্টেম এবং সোস্যাল ফাইল ম্যানেজার

ন্যূগাট ৭.০ ভার্সনের ক্যামন আই স্মার্টফোন এ রয়েছে কল রেকর্ডিং এর দারুন সুবিধা। অটোমেটিক মোডে ইনকামিং, আঊটগোয়িং সব কল অথবা কাস্টমাইজ করে নির্দিষ্ট সংখ্যক নম্বরের কল রেকর্ড করতে পারবেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে আলাদাভাবে সোস্যাল ফাইল ম্যানেজার রাখা হয়েছে ক্যামন আই এ। যার মাধ্যমে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আপ্লিকেশনগুলো নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন ব্যবহারকারী।

অন্যান্য

ক্যামন আই স্মার্টফোনের উল্লেখযোগ্য বিশেষত্ব হলো, আই কেয়ার মোড। স্মার্টফোনের একটানা ব্যবহারে নিরবিচ্ছিন্ন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করবে ক্যামন আই। ভয়েস কমান্ড ব্যবহার করে নিয়ন্ত্রন করা যাবে মোবাইলের অ্যালার্ম সিস্টেমকেও।

ডিসপ্লে আলো নিয়ে বিড়ম্বনা এড়াতে রাখা হয়েছে আউটডোর মোড, যা অতিরিক্ত আলোতেও ব্যবহারকারীর জন্য স্বাভাবিক ব্যবহার অব্যাহত রাখবে।

হ্যান্ডসেটের কোয়ালিটি নিয়ে গ্রাহকদের চিন্তামুক্ত রাখতে, বিক্রয়োত্তর ১৩ মাস পর্যন্ত সার্ভিস ওয়ারেন্টির পাশাপাশি প্রতিটি স্মার্টফোনে ১০০দিন পর্যন্ত রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা দিচ্ছে টেকনো মোবাইল। শ্যাম্পেইন গোল্ড, সিটি ব্লু, মিডনাইট ব্ল্যাক তিনটি ভিন্ন ভিন্ন রঙে ক্যামন আই সারা দেশ জুড়ে পাওয়া যাচ্ছে আপনার নিকটস্থ রিটেইল শপে।

টেকনো মোবাইল কেমন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *