Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড

Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড

Rate this post

Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড

Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড হেড টু হেড পরিসংখ্যান সর্বমোট ম্যাচ খেলেছে ১১টি। যেখানে আর্জেন্টিনার জয় ৬টি ম্যাচে। আর্জেন্টিনার জয়ের পরিমাণ ৫৪%। অন্যদিকে পোল্যান্ডের জয়লাভ করে ৩টি ম্যাচে। পোল্যান্ডের জয়ের পরিমাণ ২৭%। তাছাড়া আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড হেড টু হেড ১১টি মধ্যে ২টি ম্যাচে ড্রা হয়। ড্রার পরিমাণ ১৯%।

ব্রাজিল বনাম সুইজারল্যান্ড – brazil vs switzerland

এই দুই দলের বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত দুই বার দেখা হয়েছে। প্রথম দেখা ১৫জুন, ১৯৭৪ সালে যেখানে ২-৩ গোলের ব্যাবধানে পোল্যান্ড জয়লাভ করে। বিশ্বকাপে দ্বিতীয় দেখা ১৪জুন, ১৯৭৮ সালে যেখানে ০-২ গোল ব্যাবধানে আর্জেন্টিনা জয়লাভ করে।

Google News Flow Now

তাছাড়া আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড পরিসংখ্যান হেড টু হেড ৮টি আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলে ৫টি ম্যাচে আর্জেন্টিনা জয়লাভ করে। এবং ২টি ম্যাচে জয় পায় পোল্যান্ড বাকী একটি ম্যাচ ড্রা হয়।

সাল ম্যাচ জয়ী দল স্কোর প্রতিযোগিতা
১১জুন, ১৯৬৬ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড ড্রা ১-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
১৯ডিসেম্বার, ১৯৬৮ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা আর্জেন্টিনা ০-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
১৫জুন, ১৯৭৪ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড পোল্যান্ড ২-৩ ফিফা বিশ্বকাপ
২৪মার্চ, ১৯৭৬ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা আর্জেন্টিনা ১-২ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
২৯মে, ১৯৭৭ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড আর্জেন্টিনা ৩-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
১৪জুন, ১৯৭৮ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা আর্জেন্টিনা ০-২ ফিফা বিশ্বকাপ
১২অক্টবার, ১৯৮০ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড আর্জেন্টিনা ২-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
২৮অক্টবার, ১৯৮১ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা পোল্যান্ড ২-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
১৭জানুয়ারী, ১৯৮৪ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড ড্র ১-১ নেহেরু কাপ
২৬নভেম্বার, ১৯৯২ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা আর্জেন্টিনা ০-২ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
৫জুন, ২০১১ পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা পোল্যান্ড ২-১ আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ
০১ডিসেম্বার, ২০২২ আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড আপ কামিং পেন্ডিং ফিফা বিশ্বকাপ

Spain vs Germany-স্পেন বনাম জার্মানি

ফুটবলে পোল্যান্ডের পরিসংখ্যান

পোল্যান্ড ইউরোপের একটি শক্তিশালী ফুটবল দল। দলটির আছে অনেক প্রাচীন ইতিহাস। পোল্যান্ড সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ১৮ই ডিসেম্বার ১৯২১ সালে হাংগেরির বিপক্ষে। প্রথম ম্যাচেই ১-০ গোল ব্যাবধানে পরাজয় বরণ করে।পোল্যান্ডের সবচেয়ে বড় জয় সান মারিনোর বিপক্ষে ১লা এপ্রিল ২০০৯ সালে। ১০-০ গোল ব্যাবধানে জয়লাভ করে। দলটির পরিসংখ্যানে সবচেয়ে বড় পরাজয় ডেনমার্কের বিপক্ষে। ২৬ই জুন ১৯৪৮ সালে ৮-০ গোল ব্যাবধানে পরাজয় বরণ করে।

পোল্যান্ড এখনও পর্যন্ত ৯বার ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের মূল আসরে খেলার সুযোগ পেয়েছে। সর্বপ্রথম ১৯৩৮ সালে এবং সর্বশেষ ২০২২ সালে। বিশ্বকাপে পোল্যান্ডের সর্বোচ্চ অর্জন ১৯৭৪ এবং ১৯৮২ সালে তৃতীয় স্থান অধিকার করে। পাশাপাশি দলটি ইউরো চ্যাম্পিয়ানশিপে অংশগ্রহণ করেছে ৪বার। ইউরো চ্যাম্পিয়ানশিপে সর্বোচ্চ সাফল্য কোয়াটার ফাইনাল খেলেছে ২০১৬ সালে।

পোল্যান্ড দলটি অলিম্পিক গেমসে স্বর্ণ পদক জয় করে ১৯৭২ সালে। তাছাড়া দলটি ১৯৭৬ এবং ১৯৯২ সালে অলিম্পিক গেমসে ২বার সিলভার পদক অর্জন করে।

ফিফা বিশ্বকাপে পোল্যান্ডের স্কোয়াড

গোলরক্ষক: ভোইচেখ শেজনি, বার্তোমিয়েই দ্রাগাওভস্কি, লুকাস স্কোরাপস্কি।

ডিফেন্ডার: ইয়ান বেডনারেক, কামিল গ্লিক, রবার্ত গামনি, আর্থার ইয়েদ্রেজিক, ইয়াকব কিভিওর, মাতেয়াস ভিয়েতেস্কা, বার্তোস বেরেশিন্সকি, ম্যাটি ক্যাশ, নিকোলা জালেভস্কি।

মিডফিল্ডার: ক্রিস্টিয়ান বিয়েলিক, প্রিজেমিস্ল ফ্রাঙ্কোভস্কি, কামিল গ্রসিস্কি, গ্রেগর্জ ক্রিচোভিয়াক, ইয়াকব কামিন্সকি, মিকেল স্কোরাস, ড্যামিয়েন শিমান্সকি, সেবাস্তিয়ান শিমান্সকি, পিওত জিয়েলিন্সকি, শিমন জুরকোভস্কি

ফরোয়ার্ড: রবার্ত লেভানদোভস্কি, আরকাদিউস মিলিক, ক্রিস্তফ পিয়াতেক, ক্যারল সুইডারস্কি।

বিপিএল ২০২৩ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড

আর্জেন্টিনার ফুটবলের ইতিহাস

ল্যাটিন আমেরিকার অন্যতম সফল ফুটবল দল হল আর্জেন্টিনা। ম্যারাডোনা থেকে শুরু করে হালের এঞ্জেল ডি মারিয়া, লিওনেল মেসির হাত ধরে আর্জেন্টিনা দলটি সারা পৃথিবী জুড়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। আর্জেন্টিনা প্রথম ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচ খেলে ২০শে জুলাই ১৯০২ সালে উরুগুয়ের বিপক্ষে। প্রথম ম্যাচেই ৬-০ গোল ব্যাবধানে দারুন এক জয় পায় আর্জেন্টিনা।

Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড
Argentina vs Poland-আর্জেন্টিনা বনাম পলান্ড

ফিফা বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার স্কোয়াড

গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, ফাঙ্কো আরমানি ও জেরোনিমো রুলি।

ডিফেন্ডার: নাহুয়েল মলিনা, গঞ্জালো মন্তিয়েল, জার্মেইন পেৎসেয়া, নিকোলাস ওটামেন্দি, লিসান্দ্রো মার্টিনেজ, নিকোলাস টালিয়াফিকো, মার্কোস আকুনইয়া, ফাকুন্দো মেদিনা ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো।

মিডফিল্ডার: লিয়ান্দ্রো পারেদেস, গুইদো রদ্রিগেজ, রদ্রিগো ডি পল, জিওভান্নি লো সেলসো, আলেক্সিস মাক আলিস্তার, এনজো ফার্নান্দেজ ও থিয়াগো আলমাদা।

ফরোয়ার্ড: অ্যাঞ্জেল কোরেয়া, হুলিয়ান আলভারেজ, লাওতারো মার্তিনেজ, হোয়াকিন কোরেয়া, পাওলো দিবালা, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ও লিওনেল মেসি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *