স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য

Rate this post

স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য

স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য

  • পদ্মা বহুমুখী সেতু বাংলাদেশের দীর্ঘতম সেতুর নাম।
  • পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প পদ্মা সেতুর প্রকল্পের নাম ।
  • স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর এবং নির্মান কাজ শেষ হয় ২০২২ সালের ১৬ই ডিসেম্বর।
  • ৬.১৫ কিলোমিটার (২০,২০০ ফুট) স্বপ্নের পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ: ১৮.১০ মিটার (৫৯.৪ ফুট) মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের সাথে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলা যুক্ত হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর মাধ্যমে।
  • স্বপ্নের পদ্মা সেতুর স্প্যান সংখ্যা 41 টি এবং পিলার সংখ্যা 42 টি ।
  • চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান।
  • স্বপ্নের পদ্মা সেতুর প্রতি পিলারের জন্য পাইলিং ৬টি এবং মোট পাইলিং সংখ্যা ২৬৪টি।
  • 38 নম্বর খুটির পিলারের উপর বসানো স্বপ্নের পদ্মা সেতু এবং প্রথম স্প্যান 37 ।
  • তিন বছর দুই মাস দশ দিন সময় লাগে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর 41 টি স্প্যান বসাতে।

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান – Metro Raill GK

  1. স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ প্রকল্প। এছাড়াও এটি বাংলাদেশের সবথেকে বড় সেতু।
  2. স্বপ্নের পদ্মা সেতু ২৫ শে জুন ২০২২ তারিখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন।
  3. মোঃ শফিকুল ইসলাম পদ্মা সেতুর পরিচালক ছিলেন।
  4. স্বপ্নের পদ্মা সেতুর দুইটি স্তর রয়েছে। উপরের স্তরে চার লেনের সড়কপথ এবং নিচের স্তরে একটি রেলপথ।
  5. পদ্মা সেতুর চুক্তি বিশ্ব ব্যাংক ২০১২ সালে বাতিল করে।
  6. দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের সাথে স্বপ্নের পদ্মা সেতু সংযোগ স্থাপন করবে।
  7. তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর প্রথম উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। তখন ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকাবাজেট ধরা হয়েছিলো।
    স্বপ্নের স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে নদী পারাপারে যারা নিযুক্ত তাদের ব্যবসার ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে লঞ্চ মালিকদের। এছাড়াও নদীর দুই প্রান্তের ব্যবসায়ীদের আয় কমে গিয়েছে।
  8. পদ্মা সেতুর বাজেট মোট তিনবার সংশোধন করা হয়েছিল। প্রথমবার বাজেট করা ধরা হয় ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকা। ২০১১ সালে এই বাজেট সংশোধন করে ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়। অতঃপর পূণরায় ২০১৬ সালে
  9. সংশোধন করে ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়।
  10. স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে বাংলাদেশের অর্থনীতি আরো উন্নত হবে।

Google News

সেতুর নিকটতম সেনানিবাস হলো পদ্মা সেনানিবাস।
প্রতিদিন গড়ে ৭৫ হাজার যানবাহন চলাচল করবে।
প্রতিটি স্পেনের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার এবং প্রতিটি স্পেনের ওজন ৩ হাজার ২০০ টন।
সেতুর স্থানাঙ্ক ২৩.৪৪৬০ ডিগ্রি (উত্তর) এবং ৯০.২৬২৩ ডিগ্রি (পূর্ব)।
পানির স্তর থেকে এই অত্যাধুনিক সেতুর উচ্চতা ৬০ ফুট এবং এর পাইলিং গভীরতা ৩৮৩ ফুট।
সেতুর উপরের তলায় চার লেনের সড়ক এবং নিচতলায় থাকবে রেললাইন।
দুই পাড়ে নদী শাসন ১২ কিলোমিটার
মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজংয়ের সঙ্গে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার সরাসরি সংযোগ স্থাপিত হবে
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২৯টি জেলার সঙ্গে সংযোগ ত্বরান্বিত হবে।

পদ্মা সেতু সম্পর্কে সকল প্রশ্ন

পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য কত

৬.১৫ কিলোমিটার

পদ্মা সেতু বিশ্বের কততম সেতু

বিশ্বের ১১তম দীর্ঘ

পদ্মা সেতুর পিলার কয়টি

৪২ টি

পদ্মা সেতু উদ্বোধন কবে

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৫ জুন ২০২২ (শনিবার) বেলা ১১.৫৮ মিনিটে মুন্সিগঞ্জ এর মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন

পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয়

৩০,১৯৩ কোটি ৩৯ লক্ষ

পদ্মা সেতুর স্প্যান কয়টি

৪১

পদ্মা সেতুর পুরো নাম পদ্মা বহুমুখী সেতু
সেতুটির উদ্বোধন হয় ২৫ জুন ২০২২
উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
নির্মাণ প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড
নকশা প্রণয়ন করেছে আমেরিকার মাল্টিন্যাশনাল ইঞ্জিনিয়ারিং ফার্ম AECOM
জমি অধিগ্রহণ হয়েছে ৯১৮ হেক্টর
নির্মাণ খরচ ৩০ হাজার কোটি টাকা
পদ্মা সেতুটি দৈর্ঘ্য ৬.১৫ কিলোমিটার (২০,১৮০ ফুট)
প্রস্থ ১৮.১০ মিটার (৫৯.৪ ফুট)।
নির্মাণকাজ শুরু ২০১৪ সালের, নভেম্বর এর ২৬ তারিখ
নির্মাণ শেষ ২৩ জুন ২০২২
সেতুটির পিলার মোট ৪২টি
স্প্যান সংখ্যা ৪১ টি
ভায়াডাক্ট পিলার কয়টি ৮১টি
সংযোগ সড়কের দূরত্ব ১৪ কিলোমিটার
সংযোগ সড়ক হচ্ছে জাজিরা ও মাওয়া প্রান্তে
সেতুটি রক্ষণাবেক্ষণ করছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ
দেখাশুনার দায়িত্ব পালন করছে korian Expressway ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।
ভূমিকম্প সহনশীল মাত্রা ৯ (রিখটার স্কেলে)
সেতুটির মেয়াদ প্রায় ১০০ বছর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *